সর্বশেষ সংবাদ

ষড়যন্ত্রের শিকার হলেন নবাবগঞ্জ উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম মোস্তফা।

 BRAND BAZAAR এ LED / 3D/ Smart / 4K TV 65% ডিস্কাউন্ট


মোঃ নাজমুল হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার, 24khobor.com

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম মোস্তফা ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন। তিনি দাবি করেন তার বিরুদ্ধে কোন এক কুচক্রি মহল তাকে ষড়যন্ত্র করে ফাসিয়েছেন। তিনি আরো দাবি করেন নবাবগঞ্জ থানায় বর্তমানে আওয়ামীলীগ একটি শক্ত অবস্থানে রয়েছে। আর এই শক্ত অবস্থান কে নড় বর করতে। কোন এক প্রভাবসালী কুচক্রি মহল দারা আমার উপর ষড়যন্ত্র করে আমাকে নিন্ম অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছেঃ

ষড়যন্ত্রের শিকার হলেন নবাবগঞ্জ উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম মোস্তফা।

নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদে গত ২৯ নভেম্বর, ২০১৫ তারিখে অনুষ্ঠিত ১৯ তম সভার শুরুতে উপজেলা পরিষদের অফিস সহকারী নিয়োগ অনুমোদনের বিরোধীতা করে সভায় উচ্চবাক্য করে সভা স্থগিতকরণ, বহিরাগত নিয়ে পরিষদের সভাকক্ষে অবৈধভাবে প্রবেশ সহ সরকারী কাজে বিঘ্নিত করার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে বলে স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।

উক্ত বিষয়ে নিন্দা জানিয়েছেন নবাবগঞ্জ থানা ছাত্রলীগ, যুবলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, কৃষকলীগ সহ নবাবগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সকল অংঙ্গ সংগঠনের নেতা নেত্রী বৃন্দ। সেই সাথে নবাবগঞ্জ উপজেলার সকল জন সাধারন ও নবাবগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীদের দাবি আমরা মরিয়ম জালালকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করেছি।  তার এই তুচ্ছ ঘটনার জন্য তাকে এতো বড় শাস্তি দেওয়া হয়েছে সেটা আমরা সচেতন নাগরিক হয়ে মেনে নিতে পারিনা। আমাদের দাবি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মরিয়ম মোস্তফাকে যেন তার নিজ পদে বহল রাখা হয়।

মরিয়ম মোস্তফার কাছে মোবাইল ফোনে আনিত অভিযোগের কথা জানতে চাইলে তিনি 24khobor.com কে বলেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় আমার প্রতি অবিচার করেছে।  তাই আমি নির্দোষ তা প্রমান করার জন্য আমি উচ্চ আদালতে আমাকে নিজ পদে বহল রাখার জন্য আপিল করবো। আমার বিশ্বাস আদালত আমার প্রতি সদয় হয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলার সকল জনগনের পাশে থাকার অনুমতি দিবে এবং বঙ্গবন্ধু আদর্শ ও আওয়ামীলীগের জয় হবে।



Related posts

মন্তব্য করুন