নবাবগঞ্জে তুইতাল বৈরাগীবাড়ীর কাঁঠের পুলটি নিঃচিহ্ন, আজও নির্মিত হয়নি কোন ব্রিজ।

 15027925_996991870411803_2785333224032921134_n

দোহার প্রতিনিধি সাবিরা খানম

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় নয়নশ্রী ইউনিয়নের তুইতাল গ্রামের বৈরাগীবাড়ির সেই ঐতিয্যবাহী কাঠের পুলটি আজ কালের আবর্তনে ধ্বংসের মুখে। কিন্তু এখন পর্যন্ত নির্মিত হয়নি কোন ব্রিজ। বর্তমানে জনদূর্ভোগের আকঁড়ে ধরে আছে এলাকাটি।ঘটনাটি এলাকার জনগনের মাঝেই বারবার ঘুরপাক খাচ্ছে। একের পর এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বদলী হলেও ওই এলাকাটিতে কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি।

নবাবগঞ্জে তুইতাল বৈরাগীবাড়ীর কাঁঠের পুলটি নিঃচিহ্ন, আজও নির্মিত হয়নি কোন ব্রিজ।

অর্থাৎ বৈরাগীবাড়ীর কাঠের পুলটি বিলিন হয়ে গেলেও সেখানে নুতন করে কোন ব্রিজই স্থাপন করা হয়নি। স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, এখানে বাৎসরিক চৈত্রসংক্রান্ত মেলা, একাত্তরের যীশু শট্ ফিল্মের শুটিং খৃষ্টান ধর্মিয় উপাসনালয়, আরেক দিকে বাজার, হিন্দুধর্মালোম্ভিদের গুরুত্ববহন বহন করে আছে স্থানটি। অনেক দূর দুরান্ত থেকে মানুষ এসে এই বৈরাগী বাড়িতে ভীড় জমাতো। চৈত্র মাসে ইছামতি নদী শুকনো থাকতো বলে তুইতাল খালের পুল দিয়ে লোকজন এপার ওপার যাতায়াত করতো। কিন্তু এই কাঠের পুলটি বিলিন হওয়ার কারনে এই ঐতিহ্যবাহী উৎসবগুলো থেকে আজ বঞ্চিত হয়েছে জনপথ। এক কথায় সকল ধর্মীয় লোকজন যেমন বাস করে এই এলাকাটিতে। তেমনি একই সাথে মসজিদ, মন্দির, গ্রীজা, গার্লস স্কুল, ও একটি মিশনারি হাসপাতাল থাকায় সবকিছুতেই যাতায়াতের দূর্ভোগ পোহাতে হয় এলাকাবাসীর। এলকাবাসী আরোও বলেন বলেন, সু্ূর্য যেমন পশ্চিম দিকে অস্ত যায় তেমনি উন্নায়নের সুর্যও নবাবগঞ্জের পশ্চিমের এলাকা গুলোতে অস্ত যায়।তাই এলাকাবাসীর একটাই দাবী এই অবহেলিত এলাকাটি প্রশাসনের নজরে এনে অভিলম্ভে এই গুরুত্বপূর্ন জায়গাটিতে একটি ব্রিজ নির্মান করে ঘনবসতি এলাকার জনগনের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করা হোক।

14915227_989734367804220_5517693679436323462_n



Related posts

মন্তব্য করুন