ধর্ম বর্ণ জাত কূল বিভাজন নয়। আমরা সবাই মানুষ – বড় দিনে সালমা ইসলাম এমপি

 

আলীনূর ইসলাম মিশু, 

খ্রীষ্টমাস বৃক্ষ সাজানো, উপসনালয়ে প্রার্থনা, শুভেচ্ছা বিনিময়, বড় দিনের কেক কাটা, উপহার বিনিময়, বাড়িতে বাড়িতে আপ্যায়নসহ নানা আয়োজনের মাধ্যমে বড় দিন উদযাপন করেছে দোহার- নবাবগঞ্জের প্রত্যন্ত এলাকার খ্রিষ্টিয়ান সম্প্রদায়ের মানুষ।

ধর্ম বর্ণ জাত কূল বিভাজন নয়। আমরা সবাই মানুষ - বড় দিনে সালমা ইসলাম এমপি

সব গীর্জায় গোত্রীয় ও সম্প্রদায়ের লোকজন ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষ মেতেছিলেন এদিনে। গির্জার প্রার্থনা সভা থেকে বড়দিনের আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে ঘরে ঘরে৷ উপহার দেয়া, খাওয়া দাওয়া আর বেড়ানো বড় দনের উত্‍সবের প্রধান অনুসঙ্গ। দেশীয় রীতির এই বড়দিন উত্‍সবে খাবার দাবারের আয়োজনও দেশীয় রীতিতে৷ পিঠা, পুলি পায়েস – এ সব তো খাবারের তালিকায় থাকছেই৷ আর আছে বড়দিনের মেলা৷” গোল্লা সাধু ফ্রান্সিস গীর্জায় সাবেক মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি বলেন, আমাদের সাম্য ও সৌহার্দ্যতা বজায় রেখে সকল ধর্মের মানুষকে ভবিষ্যত পৃথিবীতে পথ উচিত বলে মনে করেন।রোববার ঢাকার নবাবগঞ্জের গোল্লা সাধু ফ্রান্সিস গীর্জায় বড় দিনের অনুষ্ঠানে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সাথে মতবিনিময় ও শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে এক বক্তব্যে তিনি এসব বলেন। এসময় তিনি উপস্থিত নারী পুরুষকে বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে তাদেরকে কেক উপহার দেন। সকালে প্রার্থনা শেষে সমবেত হওয়া শত শত খ্রিস্টান পূর্ণথীরা অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে বড়দিনের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য ও মিশনের সহসভাপতি টমাস রোজারিওর সভাপতিত্বে সাংসদ সালমা ইসলাম বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। এ কথাকে মনে রেখে বড়দিনের অনুষ্ঠানকে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সমাপ্ত করতে ভেদাভেদ না রেখে কাজ করতে হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন গীর্জার ফাদার সুব্রত গমেজ,ওসি মোস্তফা কামাল, জ্তীয় পার্টি নেতা জুয়েল আহমেদ, ইউপি চেয়ারম্যান রিপন মোল্লা, জাহাঙ্গীর চোকদার, আব্দুল গফুর, ওয়াসিম আহমেদ, শাহাদাত মেম্বার, আব্দুল আজিজ, আজাহার হোসেন, আবু আব্দুল্লাহ, পলাশ রোজারিও, জসীম উদ্দিন, শ্রীকৃষ্ণ সাহা, আসমা আক্তার রুমি, লিপি গমেজ, এরিক গমেজ প্রমুখ।



Related posts

মন্তব্য করুন