“জয়পাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ষস্ট শ্রেনীতে ভর্তির নামে চলছে অনিয়ম ও দূনীতি “


 আয়েশা সিদ্দিকীঃ

জয়পাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ষস্ট শ্রেনীতে ভর্তির নামে চলছে অনিয়ম ও দূনীতি। গত ০২/০১/২০১৭ ইং বেলা ১২ টায় ভর্তি পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন ৩৭০ জন শিক্ষাথী এক একটি ফরম ২০০ টাকা করে বিক্রি করা হয় ।

"জয়পাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ষস্ট শ্রেনীতে ভতির নামে চলছে অনিয়ম ও দূনীতি "

০৩ তারিখ সেই পরিক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্কুলে ভর্তি হতে আশা শিক্ষার্থী সহ অভিভাবকরা ক্ষোভে ফোসছে, কারন জানতে চাইলে এক,অভিভাবক বলেন, ৬ শ্রেনীর ভর্তি ফি ১৭০০ টাকা হলেও এই খানে পাশের স্কুলের তুলনায় ২ গুন টাকা বেশি নেয়া হচ্ছে। এই বিষয়ে জয়পাড়া পাইলট স্কুলের প্রধান শিক্ষক এস এম খালেক এর সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি বলেন, অন্য সকল স্কুলের খোজ করেন আমার ইচ্ছা তাই আমি ফি বেশি নিচ্ছি আমার ইচ্ছা তাই কম নেব দুটোই আমার ইচ্ছা। এক পর্যায়ে তিনি সাংবাদিক এর সাথে তিনি উচ্চ কণ্ঠে কথা শুরু করেন এবং দোহার এর সাংবাদিকদের প্রমাণ ছারা প্রতিবেদন প্রকাশ করার অভিযোগ করেন। দোহার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার লিয়াকত আলীর সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিককে বলেন উক্ত বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না এবং এই বিষয়ে তার কিছু করার নেই, তিনি আরো বলেন, জয়পাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় এর ম্যানেজিং কমেটির সভাপতির সাথে যোগাযোগ করতে। অতঃপর জয়পাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমেটির সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব আলমগীর হোসেন এর সাথে ফোনালাপ এ তিনি জানান এই বিষয়টি তিনিও অবগত নন । জয়পাড়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় ৩৭০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হচ্ছে যাদের প্রত্যেককে গুনতে হচ্ছে ২৪০০ থেকে ২৮০০ টাকা। নাম না বলতে ইচ্ছুক এক অভিভাবক বলেন তারা পুরো বেয়াইনি ভাবে এসব ভর্তি ফি আদায় করছেন।

 

 

 



Related posts

মন্তব্য করুন