সর্বশেষ সংবাদ

নবাবগঞ্জে ভন্ড ফকিরের অপচিকিৎসায় প্রবাসীর মৃত্যু

 

আলীনূর ইসলাম মিশু:

ঢাকার নবাবগঞ্জের টুকনীকান্দা গ্রামে জব্বর ফকির নামে এক ভন্ড ফকিরের অপচিকিৎসায় সুক্কু মোল্লা (৫০) নামে এক প্রবাসীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত সুক্কু মোল্লার স্ত্রী সালমা বেগম জানান, গত ৩/৪ মাস পূর্বে সৌদি আরবে হৃদরোগে আক্রান্ত হন সুক্কু মোল্লা।

নবাবগঞ্জে ভন্ড ফকিরের অপচিকিৎসায় প্রবাসীর মৃত্যু

সেখানে চিকিৎসা শেষে আড়াই মাস আগে বিশ্রামের জন্য দেশে ছুটিতে আসেন। ৬/৭ বছর আগে সৌদিতে এক সাথে কাজ করতেন জব্বর ফকির ও সুক্কু মোল্লা। খবর পেয়ে প্রবাসী বন্ধুর বাড়িতে যায় ভন্ড ফকির জব্বর। সে হৃদরোগ সহ নানা রোগের চিকিৎসা দেন বলে তাকে আশ্বস্ত করেন। কথায় বিশ্বাস করে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর কবিরাজের কাছে স্ত্রীকে সাথে নিয়ে আসে সুক্কু মোল্লা। সালমা বেগম অভিযোগ করেন, সেখানে তার স্বামীকে পায়ের নিচ দিয়ে হাত দিয়ে মাথা উঁচু করতে বলা হয়। এসময় ঘাড় বাঁকা করে জোরপূর্বক ধরে রাখে জব্বর ফকির। পরে ঐ অবস্থাতেই মাথায় তেল দিয়ে তিন ঘন্টা মালিশ করে। এক পর্যায়ে বুকে ব্যাথা অনুভব করে সুক্কু মোল্লা অসুস্থ হয়ে পড়ে। অসুস্থ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাইলে ফকির বাঁধা দেয়। বলে বাসায় নিয়ে যা সকালে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে যাবে। ফকিরের কথা মত স্বজনরা তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি ঘটলে রাত ৩টার দিকে তাকে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় স্বজনরা। ঐসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। বুধবার সকাল ১০টায় সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুক্কু মোল্লার মৃত্যু হয়। দুপুর ১টার দিকে নিহতের লাশ গ্রামে আসে। ঘটনার পর থেকে ভন্ড ফকির জব্বার পলাতক রয়েছে।



Related posts

মন্তব্য করুন