সর্বশেষ সংবাদ

বনানীতে দুই শিক্ষার্থী ধর্ষণ, একজন ছিলেন মডেল রাহা?

বনানীর রেইন ট্রি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় তোলপাড় সারা দেশ। ধর্ষণে অভিযুক্ত ২ জনকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত সাফাত আহমেদ ও সাদমান সাকিফের ৬ দিন ও ৫ দিন করে রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করে আদালত। ধর্ষণকারীদের মধ্যে অন্যতম একজন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ব্যবসায়ী নাঈম আশরাফ। তার সঙ্গে মডেল অভিনেত্রী রাহা তানহার সেলফি রয়েছে। সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় কে বা কারা ছড়িয়ে দিয়েছেন, রাহাকে ধর্ষিতা তরুণী আখ্যা দিয়ে।

বনানীতে দুই শিক্ষার্থী ধর্ষণ, একজন ছিলেন মডেল রাহা?

অনেকেই রাহাকে না চিনতে পেরে গুজব ছড়াচ্ছেন, ধর্ষিতা দুই নারীর মধ্যে একজন মডেল রাহা তানহা খান। আদৌ এটি রাহা কিনা সেটার সত্যতা কেউ যাচাই করছেন না। বিষয়টি এরই মধ্যে নজরে এসেছে রাহার। প্রথমে বিষয়টিকে তিনি পাত্তা না দিলেও পরে অনেকের ফোন ও মেসেজে বাধ্য হয়েছেন ব্যাপারটি সিরিয়াসলি নিতে।

বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ ঝেড়েছেন রাহা তানহা খান। দেশের একটি অনলাইন গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‌‘আমি একজন মডেল-অভিনেত্রী। আমার একটা পরিচয় আছে। না জেনে যারা গুজব ছড়াচ্ছেন ধর্ষিতা দুজন মেয়ের মধ্যে আমি একজন তারা আসলে ভুল করছেন। এটা আমার ইমেজ নষ্ট করার জন্য কেউ করছে বলে মনে করি।’

রাহা বলেন, ‘গেল বছর একটি কনসার্টের জন্য নেহা কাক্কারকে ঢাকায় এনেছিলেন নাঈম আশরাফ। তখন ওই অনুষ্ঠানে আমাকে পারফর্ম করার জন্য নাঈম নিজেই ফোন করেছিলেন। আমি তখন অন্য কাজে ব্যস্ত থাকায় তার অনুষ্ঠানে যেতে পারিনি। তখন নাঈমকে আমি চিনতামও না। এরপর মাস দেড়েক আগে বনানীর একটি খাবার রেস্তোরাঁয় নাঈম আমাকে দেখে ডাকেন। তখন তিনি তার পরিচয় দেন; এরপর দূর থেকে আমার সঙ্গে একটি সেলফি তোলেন। এরপর তার সাথে আমার দেখা, কথা কিছুই হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘যেকোনোভাবে ছবিটা এখন ছড়িয়ে পড়েছে। আমি কিছুই জানি না। হঠাৎ দেখি অনেকেই আমাকে জিজ্ঞেস করছে আমি ধর্ষিতা মেয়েটি কিনা! বিষয়টি নিয়ে আমি বিরক্ত। কেন মানুষ এই ছবিটা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে আমার মাথায় আসছে না। এতে করে ধর্ষিতা মেয়েটিকেও ছোট করা হচ্ছে, আমাকেও হেয় করার চেষ্টা চলছে।’

রাহা আরও বলেন, ‘মিডিয়াতে যারা কাজ করি তাদের অনেকের সঙ্গেই অনেকের সেলফি থাকতে পারে। ফেরদৌস ভাইয়ের সঙ্গে জঙ্গি জিবরাসের সেলফি পাওয়া গিয়েছিল, এর মানে কি ফেরদৌস ভাই জঙ্গি ছিলেন বা তিনি ওই জঙ্গিকে আগেই চিনতেন? এমনটা ভাবার তো সুযোগ নেই। ফেরদৌস ভাই বড় তারকা। উনার সাথে যে কেউই সুযোগ পেলে ছবি তুলতে চাইবেন। এটাই আমি বলতে চাই। নাঈম আশরাফ আমার সঙ্গে ছবি তুলেছিলেন। তাকে আমি খুব একটা চিনি না। আর একটা ছবি নিয়ে যারা গুজব ছড়াচ্ছেন, আমি তাদের শনাক্ত করার চেষ্টা করছি। তাদের বিরুদ্ধে মামলার করব।’



Related posts

মন্তব্য করুন