শরীর সুস্থ রাখবে খনিজ পদার্থ!


পুষ্টিকর উপাদান এবং খনিজ ছাড়া শরীরের পক্ষে কর্মচঞ্চল থাকাটা একেবারেই সম্ভব নয়। তাই তো আমাদের রোজের ডায়েটের দিকে খেয়াল রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। কারণ খাবারের মাধ্যমেই এইসব প্রয়োজনীয় খনিজ এবং বাকি উপাদানেরা শরীরে প্রবেশ করে থাকে। শরীরকে রোগমুক্ত রাখতে কী কী উপাদানের প্রয়োজন, আসুন তা জেনে নেইঃ

শরীর সুস্থ রাখবে খনিজ পদার্থ!

১.পটাশিয়াম: এনার্জির যোগান ঠিক রাখতে পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া একান্ত প্রয়োজন। এক্ষেত্রে কলা প্রথম পছন্দ হতে পারে। কলা যেমন সহজলভ্য, তেমনি পুষ্টিগুণে ভরপুর। এছাড়া বাদামেও প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম থাকে। মানসিক অবসাদ বা ডিপ্রেশনের প্রকোপ কমাতে পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবার দারুন কাজে লাগে।

২.ভিটামিন সি: শরীরকে চাঙ্গা রাখতে ভিটামিন-সি-এর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। ভিটামিন সি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটিয়ে নানাবিধ রোগকে দূর রাখে। সাধারণত সাইট্রাস ফলে ভিটামিন সি প্রচুর পরিমাণে থাকে।

৩.ভিটামিন ডি : শরীরে ভিটামিন-ডি-এর ঘাটতি দেখা দিলে হাড় দুর্বল হয়ে যায়। সেই সঙ্গে মানসিক অবসাদে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও বহুগুণে বৃদ্ধি পায়। টুনা মাছ, চিজ, দুধ প্রভৃতি খেলে শরীরে ভিটামিন-ডি-এর ঘাটতি দূর হয়। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে সূর্যের আলো ভিটামিন-ডি-এর খুব ভাল উৎস।

৪.আয়রন: শরীরে পর্যাপ্ত পরিমাণে আয়রণ না থাকলে অ্যানিমিয়া রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে ক্লান্তি বোধ খুব বেড়ে যায়। প্রতিদিন পালং শাক এবং বিনস খাওয়া শুরু করুন। তাহলেই আর আয়রণের ঘাটতি জনিত সমস্যায় ভুগতে হবে না।

৫.ক্যালসিয়াম: দাঁত এবং হাড়ের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে ক্যালসিয়ামের যোগান ঠিক থাকাটা একান্ত প্রয়োজন। প্রতিদিন দুগ্ধজাত খাবার এবং ডিম খেলে ক্যালসিয়াম এর ঘাটতি সহজেই পূরন হবে।

৬. ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড: কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি হজম ক্ষমতার উন্নতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। ত্বককে সুন্দর এবং নরম রাখতেও ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। মাছ, ডিম এবং অ্যাভোকাড ফলে এই উপাদানটি প্রচুর মাত্রায় থাকে।

 



Related posts

মন্তব্য করুন