সর্বশেষ সংবাদ

দোহারে ৫দিন পরেও খোজ মেলেনি মৈনট ঘাটে নিখোঁজ হওয়া ২ শিক্ষার্থীর

 

মো:আসাদ মাহমুদ

ঢাকা জেলার দোহার উপজেলার মিনি-কক্সবাজার খ্যাত মৈনট ঘাটে পদ্মায় নিখোঁজ হওয়া এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হলেও এখনো নিখোঁজ রয়েছেন দুইজন। তারা হলো-সালমান (২৪) ও সুপ্রিয় (২২) নামে দুই শিক্ষার্থী।

দোহারে ৫দিন পরেও খোজ মেলেনি মৈনট ঘাটে নিখোঁজ হওয়া ২ শিক্ষার্থীর

ঘটনাস্থল থেকে জানা যায়,গত মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা থেকে দোহারের মৈনট ঘাটে বেড়াতে আসা পাঁচ বন্ধু পদ্মা নদীতে গোসল করতে নামে।তবে সবাই গোসল শেষে উঠে এলেও উঠে আসেনি মাহিম,সালমান ও সুপ্রিয়।পরদিন সকাল ৮:৫০মি: ফায়ার সার্ভিস ও নৌবাহিনীর ডুবুরী একদল প্রায় ২ দুই কিলোমিটার দূরে মাহিমের লাশ খুজে পায়।নিখোজের মধ্যে একজন সুপ্রিয় ঢালী, পিতাঃ নাসির উদ্দিন ঢালী তার গ্রামের বাড়ী মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার শ্রীনগর গ্রামের বাসিন্দা।সুপ্রিয় মিরপুর কমার্স কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।আরেকজন সালমান(২০)।পিতাঃ ডক্টর মো, জালাম উদ্দিন তার গ্রামের বাড়ী ২৭ টঙ্গী গাজিপুর।তবে নিখোঁজ হওয়ার পরদিন থেকে প্রতিদিন ফায়ার সার্ভিস, কোষ্টগার্ড এবং নৌবাহিনীর ডুবুরী দল চেষ্টা করেও সালমান এবং সুপ্রিয় কারোই কোন সন্ধান করতে পারেনি।সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো উদ্ধার অভিযান চলছে। এবিষয়ে স্টেশন অফিসার শাহরিয়া রহমান জানান,তারা এখনো আশাবাদী যেকোনো সময় নিখোঁজ কারো সন্ধান মিলতে পারে।যেহেতু তারা একটি সান্ গ্লাস পেয়েছে সেহেতু কোনো সন্ধান মিলতে পারে বলে আশাবাদী তিনি।তবে সন্ধান না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে যানান তিনি। দোহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম শেখ জানান,নিখোঁজ হওয়ার ঘটনার পর থেকে ঘটনাস্থলে আরো পুলিশ মোতায়েন করে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।যেনো আর কোনো অপৃতিকর ঘটনা না ঘটে।পাশাপাশি সকল দর্শনার্থীদের পানি না নেমে ননিরাপদ স্থানে থাকার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে।এখনও নিখোঁজ দুই শিক্ষার্থীর সন্ধানে অভিযান চলছে। দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে এম আল-আমিন ২৪খবরকে জানান,নিখোঁজদের সন্ধান না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার কাজ চলবে।



Related posts

মন্তব্য করুন