সর্বশেষ সংবাদ

“বিপদ সীমার উপর দিয়ে বয়ে চলছে পদ্মার পানি ঝুকিতে দোহারের নিন্মাঞ্চল”

আয়েশা সিদ্দিকীঃ

পদ্মা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় পানিতে তলিয়ে যেতে শুরু করেছে দোহার উপজেলার নিম্নাঞ্চল গুলো। গত সোমবার দুপুর থেকে দোহারের , সুতারপাড়া, মাহমুদপুর,বিলাশপুর, নারিশা, নয়াবাড়ি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি এলাকায় বন্যার পানি ঢুকতে শুরু করে। এতে প্লাবিত হয় শত শত বাড়ি-ঘর।

পদ্মা পানি বিপৎসীমার ৫২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত : দোহার ও নবাবগঞ্জ পানিতে ডুবতে শুরু করেছে ।

দোহারের মধুরচর ও বিলাসপুর এলাকার বেশ কয়েকটি রাস্তাঘাটও পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ওই সড়কগুলোতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। পদ্মার পানির তীব্র স্রোত ও পানীর প্রচন্ড চাপে মঙ্গলবার রাতে নয়াবাড়ি ইউনিয়নে চলমান ২১৭ কোটি টাকার পদ্মা বাঁধ প্রকল্পের তিনটি পয়েন্টে ভাঙন দেখা দিয়েছে। রাতে ভাঙনের সৃষ্টি হয়ে এলএলাকায় পানি ঢুকতে থাকলে স্থানীয়রা বালুর বস্তা ফেলে তা প্রতিরোধের চেষ্টা চালায়। দুটি পয়েন্টে বাঁধের ওপর দিয়ে পানি অপর পাশে ঢুকতে শুরু করেছে। এ অবস্থায় আতঙ্ক বিরাজ করছে নদীপারের বাসিন্দারের মাঝে। ঝুকিতে সমগ্র দোহার বাসী। পদ্মা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় পানিতে তলিয়ে যেতে শুরু করেছে দোহার উপজেলার নিম্নাঞ্চল গুলো। গত সোমবার দুপুর থেকে দোহারের , সুতারপাড়া, মাহমুদপুর,বিলাশপুর, নারিশা, নয়াবাড়ি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি এলাকায় বন্যার পানি ঢুকতে শুরু করে। এতে প্লাবিত হয় শত শত বাড়ি-ঘর। দোহারের মধুরচর ও বিলাসপুর এলাকার বেশ কয়েকটি রাস্তাঘাটও পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ওই সড়কগুলোতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। পদ্মার পানির তীব্র স্রোত বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় মঙ্গলবার রাতে নয়াবাড়ি ইউনিয়নে চলমান ২১৭ কোটি টাকার পদ্মা বাঁধ প্রকল্পের তিনটি পয়েন্টে ভাঙন দেখা দিয়েছে। রাতে ভাঙনের সৃষ্টি হয়ে এলএলাকায় পানি ঢুকতে থাকলে স্থানীয়রা বালুর বস্তা ফেলে তা প্রতিরোধের চেষ্টা চালায়। দুটি পয়েন্টে বাঁধের ওপর দিয়ে পানি অপর পাশে ঢুকতে শুরু করেছে। এ অবস্থায় আতঙ্ক বিরাজ করছে নদীপারের বাসিন্দারের মাঝে। ঝুকিতে সমগ্র দোহার বাসী।



Related posts

মন্তব্য করুন