সর্বশেষ সংবাদ

কেরানীগঞ্জে নিখোঁজের একদিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

 

কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন সিরাজনগর এলাকায় নিখোঁজের একদিন পর কওমি মাদ্রাসার এক ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে মডেল থানা পুলিশ। নিহত শিশুর নাম ফারজানা আক্তার (৮)।  তার পিতার নাম মো. কবির হোসেন।

কেরানীগঞ্জে নিখোঁজের একদিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

নিহত শিশুর পিতা মো. কবির হোসেন জানান, তার মেয়ে ফারজানা সিরাজনগর মারকাজুল হুদা কওমি মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির ছাত্রী। শনিবার বিকালে তার মেয়ে বাড়ির পাশের সড়কে খেলতে যায়। সন্ধ্যা হয়ে গেলে মেয়ে বাড়িতে ফিরে না আসলে আমরা বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করতে থাকি। কোথাও না পেয়ে রাতে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করি। এরপর রবিবার ভোর ৬টার সময় অজ্ঞাত নম্বর থেকে ফোন আসে। সে ফোন থেকে বলা হয়, তোমার মেয়ে আমার কাছে আছে। তাকে সুস্থভাবে পেতে চাইলে ৫ লাখ টাকা পাঠাও। কিন্তু কোথায় পাঠাবো কার মাধ্যমে পাঠাবো কিছুই বলেনি।

এরপর আরো কয়েকবার ওই ব্যাক্তি ফোন করে ৫ লাখ টাকা দাবি করে আসছে। পরে টাকা নিয়ে শাহজালাল বিমানবন্দর এলাকায় যেতে বলে। আমি তাকে বলি আমি গরিব মানুষ, তরকারি বিক্রি করে কোনরকম সংসার চালাই। আমি এত টাকা কোথায় পাবো? কিন্তু ওই ব্যক্তি হুমকি দিয়ে বলে, তোর মেয়েকে জীবিত ফেরত চাইলে টাকা নিয়ে বিমানবন্দরে যেতে হবে। পরে বিষয়টি আমি থানা পুলিশকে জানাই। আজ দুপুরে আমার বাড়ির পাশে ঝোপের ভেতর স্বজনরা ফারজানার লাশ দেখে আমাদের খবর দেন। আমরা ঝোপের ভিতর গিয়ে ফারজানার লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেই।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের জানান, নিহত শিশুটির বাবা শনিবার রাতে থানায় এসে একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেছেন। এরপর নিখোঁজ শিশুর বাবার মোবাইল ফোনে ৫ লাখ টাকা চেয়ে একাধিকবার ফোন আসে। আমরা সে বিষয়টি মাথায় রেখে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করছিলাম। এরইমধ্যে শিশুটির বাবা আজ দুপুরের পর ফোন করে জানান যে, তার বাড়ির পাশের ঝোপের ভিতর মেয়ে ফারজানার লাশ পাওয়া গেছে। তিনি আরো জানান, লাশ পাওয়ার পরও ফোনে টাকা চেয়ে যাচ্ছে।লাশ উদ্ধারের পর দেখা গেছে, তার গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, জমিজমা নিয়ে পারিবারিক কোনো কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডে ঘটেছে। নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের বাবা মো. কবির হোসেন বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।



Related posts

মন্তব্য করুন