সর্বশেষ সংবাদ

মেসির হ্যাটট্রিক : বিশ্বকাপের দ্বারপ্রান্তে আর্জেন্টিনা


দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া আর্জেন্টিনা শেষ মুহূর্তে জ্বলে ওঠেছে। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের শেষ ম্যাচে তারা এখন ৩-১ গোলে এগিয়ে রয়েছে। এখন বিরতি চলছে। আর্জেন্টিনার পক্ষে মেসিই করেছেন গোল তিনটি।

খেলা শুরু হওয়ার ৪০ সেকেন্ডের মধ্যে আর্জেন্টিনা ১ গোলে পিছিয়ে যায়। এর পর একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে পিঠ দেয়ালে ঠেকে যাওয়া আর্জেন্টিনা। এর ফল হিসাবে খেলার ১১ মিনিটের মাথায় ডি মারিয়ার দারুণ এক পাসে মেসি একুয়েডর এর জালে বল পাঠিয়ে ১-১ এ সমতা আনেন।

hjhjhj

এর পর খেলার ১৬ মিনিটে ডি- বক্সের বাইরে ফ্রিকিক মেসি কাজে লাগাতে না পারলে গোল বঞ্চিত হয় মেসিরা। তবে এর ঠিক ২ মিনিট পর আবারো মেসি ম্যাজিকে গোল পায় আর্জেন্টিনা। ফলাফল ২-১ গোলে এগিয়ে মেসিবাহিনী। প্রথমার্ধে এভাবেই শেষ হয় খেলা। দ্বিতীয়ার্ধে আবার গোল করেন মেসি। ৬২ মিনিটে তিনি গোলটি করেন।

৩২ মিনিটে মেসির পাসে সহজ এক সুযোগ দি- মারিয়া মিস করলে আরেকটি গোল বঞ্চিত হয় মেসিরা। বাকি সময়ে আর গোল করতে পারেনি কোন দল। এখন সেকেন্ড হাফে কেমন করে মেসিরা সেটাই দেখার বিষয়।

বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে এখন পর্যন্ত ১৭ ম্যাচ খেলে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে তারা। ইকুয়েডরের বিপক্ষে শেষ দুই বারের সাক্ষাতে একটি জয় আর্জেন্টিনার আরেকটিতে জয় পায় তারা। বিশ্বকাপে সুযোগ পেতে আর্জেন্টিনার সামনে জয়ের বিকল্প নেই।

খেলা শুরুর আগে যে সমীকরণ আর্জেন্টিনার সামনে
বিশ্বকাপে সুযোগ পেতে আর্জেন্টিনার শেষ ম্যাচটিকে বাঁচা-মরার লড়াই বলাটা ঠিক হবে না। কারণ শুধু জিতলেই যে সরাসরি টিকেট পেয়ে যাচ্ছে তা কিন্তু নয়। খেলতে হবে প্লে-অফে। আবার হারলে যে বাদ হয়ে যাবে, তাও না। ড্র করলে হিসেব অন্য। কারণ একমাত্র ব্রাজিল ছাড়া কোনো দলই এখনো পর্যন্ত বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করতে পারেনি। বাকি দলগুলোর খেলার ফলাফলের ওপর নির্ভর করছে অনেক কিছু।

ম্যাচে মেসিদের হার-জিত-ড্রয়ে জটিল সমীকরণ :
– যদি আর্জেন্টিনা ইকুয়েডরের বিপক্ষে জিতে তাহলে প্লে-অফে খেলা নিশ্চিত।
– আর সরাসরি বিশ্বকাপে খেলবে যদি পেরু-কলম্বিয়া ম্যাচটা ড্র হয়। আর যদি ব্রাজিলের কাছে চিলি হারে।
– আর্জেন্টিনা যদি ড্র করে সরাসরি খেলবে, যদি কলম্বিয়া পেরুকে হারায়, চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে ব্রাজিলের কাছে হারে এবং প্যারাগুয়ে ভেনেজুয়েলাকে হারাতে না পারে। আর যদি পেরু দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে কলম্বিয়াকে হারায়, চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে ব্রাজিলের কাছে হারে এবং প্যারাগুয়ে ভেনেজুয়েলাকে হারাতে না পারে।

– আর্জেন্টিনা হেরে গেলে প্লে-অফে খেলবে, যদি কলম্বিয়া পেরুকে দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারায় এবং ভেনেজুয়েলা না হারে।
আর্জেন্টিনা প্লে-অফে খেলার সুযোগ পাবে যদি- কলম্বিয়া পেরুকে হারায় এবং প্যারাগুয়ে-ভেনেজুয়েলা ম্যাচটা ড্র হয়।
– এছাড়া পেরু কলম্বিয়াকে হারায়, চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারে ব্রাজিলের কাছে এবং প্যারাগুয়ে ভেনেজুয়েলাকে হারাতে না পারে।

– কলম্বিয়া পেরুকে হারায় এবং চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারে ব্রাজিলের কাছে।
– পেরু-কলম্বিয়া ম্যাচ ড্র হয়, চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারে ব্রাজিলের কাছে এবং ভেনেজুয়েলা না জেতে।
– পেরু দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারে কলম্বিয়ার কাছে এবং একই ব্যবধানে চিলি হারে ব্রাজিলের কাছে।

আর্জেন্টিনার স্কোয়াড :
গোলরক্ষক : রোমেরো, নাহুয়েল গুজম্যান, মার্চেসিন
ডিফেন্ডার : ফ্যাজিও, মাম্মানা, প্যাজেল্লা, মাসচেরানো, ওতামেন্দি, মার্কেদো
মিডফিল্ডার : অ্যাকুনা, ডি মারিয়া, বিগলিয়া, প্যারেডস, বানেগা, গোমেজ, সালভিও এবং রিগোনি
ফরোয়ার্ড : লিওনেল মেসি, সার্জিও আগুয়েরো, মাওরো ইকার্দি, পাওলো দিবালা

দক্ষিণ আফ্রিকার পয়েন্ট টেবিল-

দেশ ———– পয়েন্ট
১. ব্রাজিল —— ৩৮
২. উরুগুয়ে —- ২৮
৩. চিলি ———২৬
৪. কলম্বিয়া——২৬
৫. পেরু———২৫
৬. আর্জেন্টিনা—২৫
৭. প্যারাগুয়ে—-২৪
৮. ইকুয়েডর—-২০
৯. বলিভিয়া—–১৪
১০. ভেনেজুয়েলা- ৯

নয়া দিগন্ত

Save

Save



Related posts

মন্তব্য করুন