সর্বশেষ সংবাদ

মুক্তিযুদ্ধের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত দেশ জঙ্গীবাদ-মৌলবাদের চক্রান্তে ধ্বংস হতে পারে না : তথ্যমন্ত্রী

Enu-20131124134048

 

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত দেশ জঙ্গীবাদ ও মৌলবাদের চক্রান্তে ধ্বংস হতে পারে না। তিনি বলেন, আজকের শিশুরাই সাম্প্রদায়িকতা, জঙ্গীবাদ ও শোষণ মুক্ত এক সমৃদ্ধ-গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়বে।
মন্ত্রী গতকাল রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে ‘পথ শিশু’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেব বক্তৃতা করছিলেন।
আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন পেইন্টেড চিলড্রেন, ইউকে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সিআরপি প্রতিষ্ঠাতা ভেলেরী টেইলরকে দেয়া সম্মাননা দেয়া হয়।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ ও গবেষক অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন।
সংস্থার পরিচালক নাজিনুর রহিমের সভাপতিত্বে আরো বক্তৃতা করেন বিশিষ্ট অভিনেতা ও আবৃত্তিকার জয়ন্ত চট্টপাধ্যায় ও ৭১’ টেলিভিশনের বার্তা বিভাগের পরিচালক সৈয়দ ইসতিয়াক রেজা।
হাসানুল হক ইনু বলেন, গ্রামের সাধারণ মানুষ বা নারী-পুরুষের শ্রমের বিনিময়েই দেশের উন্নয়ন ঘটছে ও অর্থনীতির চাকা মজবুত হচ্ছে।
তিনি বলেন, গ্রামের সাধারণ মানুষকে সচেতন করে কাজের মাধ্যমে সভ্যতাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে তরুণ এনজিও কর্মীরা যে ভূমিকা রেখে চলেছে, তা অনস্বীকার্য।
এ ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের ভূমিকারও প্রশংসা করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, দেশের পরিবর্তনে গণমাধ্যমের এ সচেতনতাই সাধারণ মানুষকে ভাল কাজে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।
শিক্ষাকে দারিদ্র থেকে বেরিয়ে আসার টিকিট অভিহিত করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, একটি আজকের শিশুকে শিক্ষিত করার অর্থই হচ্ছে একটি পরিবারকে দারিদ্র থেকে বেরিয়ে আসার টিকিট দেয়া। আর এদিকটি ভেবেই বর্তমান সরকার শিক্ষার প্রতি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে। বর্তমানে প্রায় শতভাগ শিশুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়া সরকার নিশ্চিত করেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
ইনু বলেন, তবে শিশুদের এমন শিক্ষা দিতে হবে, যে শিক্ষা সমাজ, পিতামাতা ও দেশকে ভালবাসতে শেখাবে এবং যুদ্ধাপরাধী, জঙ্গীবাদ, ধর্মান্ধ মৌলবাদ ও লুটেরাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে উদ্বুদ্ধ করবে।
তিনি বলেন, জঙ্গীরা বর্তমানে শিশুদের ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করছে। তাদের অস্ত্র বহন ও মাদক পাচারে ব্যবহার করা হচ্ছে। এই চক্রের হাত থেকে শিশুদের রক্ষায় সরকারের পাশাপাশি সমাজের সচেতন মহলকেও এগিয়ে আসতে তিনি আহবান জানান।
অনুষ্ঠানে জনহিতকর কাজের জন্য ভেলেরী টেইলরকে পেইন্টেড চিল্ড্রেন এর পক্ষ থেকে বিশেষ সম্মাননা দেয়া হয়।
টেইলর পক্ষাগ্রস্থ মানুষের চিকিৎসা ও পূনর্বাসনের জন্য ৪০ বছরেরও বেশী সময় ধরে বাংলাদেশে কাজ করছেন। তার এই মহৎ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পেইন্টেড চিল্ড্রেনের পরিচালক তাকে ক্রেস্ট ও উত্তরীয় পরিয়ে সম্মাননা প্রদান করেন।
‘পথ শিশু’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদশর্নীতে প্রায় সাড়ে ৯ হাজার ছবি জমা পড়ে। সেখান থেকে ৪০টি ছবি বাছাই করে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিজয়ীসহ ২৫ শ্রেষ্ঠ আলোকচিত্রীর হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।



Related posts

মন্তব্য করুন