সর্বশেষ সংবাদ

বিদ্যুতের দাম ১৭.৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব ডিপিডিসির

বিদ্যুতের দাম ১৭.৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব ডিপিডিসির

গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ১৭ দশমিক ৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি।
রাজধানীর কাওরানবাজারে অবস্থিত টিসিবি ভবনের অডিটরিয়ামে বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে ৩টায় গণশুনানির শুরুতেই এ প্রস্তাব উত্থাপন করেন ডিপিডিসির পরিচালক (অর্থ)মো. আসাদুজ্জামান। এ সময় উপস্থিত আছেন ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিগ্রে. জে. (অব.) নজরুল হাসান।
ডিপিডিসির প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ডিপিডিসি’র পরিচালন ব্যয়, রক্ষণাবেক্ষন ব্যয় ও হুইলিং চার্জসহ প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের মুল্য এখন ৭ দশমিক ৪৪ টাকা এবং তা বিক্রয় করা হচ্ছে গড়ে প্রতি ইউনিট ৭ দশমিক ৩৮ টাকা দরে। ফলে ডিপিডিসি প্রতি ইউনিটে লোকসান দিচ্ছে দশমিক শুন্য ছয় টাকা। বিপিডিবি তাদের প্রস্তাবে বিদ্যুতের পাইকারী মূল্যহার ১৮ দশমিক ১২ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। পাইকারি দাম বাড়লে খুচরা দামও বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে ‍ডিপিডিসি গ্রাহক পর্যায়ে ১৭ দশমিক ৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করছে। পাইকারী দাম গ্রাহক পর্যায়ে যদি না বাড়ানো হয় তাহলে ঘাটতি অর্থ বিদ্যুৎ বিভাগকে ভর্তুকি হিসেবে দেওয়ার অনুরোধ করা হয়।
ডিপিডিসির পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০০৮-০৯ অর্থ বছর থেকে ২০১১-১২ পর্যন্ত যথাক্রমে ৮৭ কোটি, ১৯৩ কোটি, ২০৯ কোটি ও ৬৭ কোটি টাকা কর পরবর্তী নীট মুনাফা করেছে। কিন্তু পরবর্তী ২০১২-১৩ ও ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে পাইকারি দামের সঙ্গে খুচরা দামের সমন্বয়হীনতার কারণে যথাক্রমে ৬৪ ও ২৩ কোটি টাকা লোকসান দিয়েছে।
বিইআরসি’র চেয়ারম্যান এ আর খানের সভাপতিত্বে গণশুনানি গ্রহণ করেন কমিশনের সদস্য ড. সেলিম মাহমুদ, প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন, রহমান মুরশেদ ও মাকসুদুল হক।
শুনানীতে ক্যাব-এর জ্বালানী উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. শামসুল আলমসহ রাজনৈতিক দল ও ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত আছেন।
এর আগে সকালে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের(বিপিডিবি)গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের উপর শুনানি করা হয়। বিপিডিবি গ্রাহক পর্যায়ে ২২ দশমিক ৪৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। আর বিইআরসি কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি পাইকারি বিদ্যুতের দাম বাড়লে ৭ দশমিক ৮৩ শতাংশ ও দাম না বাড়লে ৩ দশমিক ০৯ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ করেছে।
আগামী ২৫ জানুয়ারি শেষ দিনে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি)ও ঢাকা ইলেক্ট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো) প্রস্তাবের উপর গণশুনানী অনুষ্ঠিত হবে।
গত ২০ জানুয়ারি গণশুনানি শুরু করে বিইআরসি। প্রথম দিনে বিপিডিবির পাইকারি বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের উপর, দ্বিতীয় দিন বুধবার (২১ জানুয়ারি) পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ (পিজিসিবি) ও ওয়েস্ট-জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো) প্রস্তাবের উপর শুনানী গ্রহণ করা হয়।
উল্লেখ্য, ঢাকা এবং নারায়ণগঞ্জের কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করে ডিপিডিসি। কোম্পানিটির মোট গ্রাহক সংখ্যা ৯ লাখ ২৫ হাজার ৪৩৭। এর মধ্যে ৪৫ শতাংশই আবাসিক গ্রাহক।

http://brandbazaarbd.com/shop/air-conditioner-air-cooler/carrier-1-5-ton-air-conditioner-heating-cooling/



Related posts

মন্তব্য করুন