সর্বশেষ সংবাদ

“এক নেত্রী শেখ হাসিনাই যথেষ্ট বললেন ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা”

“এক নেত্রী শেখ হাসিনাই যথেষ্ট বললেন ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা”

বাংলাদেশ জাতীয় জোটের (বিএনএ) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয় জোটের সাত দফা বাস্তবায়ন করতে এক নেত্রীই (আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা) যথেষ্ট। তাই এখন আমাদের দ্বিতীয় নেত্রীর প্রয়োজন নেই।’

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাব কনফারেন্স লাউঞ্জে বাংলাদেশ জাতীয় জোট আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। গণতন্ত্রের ম্যাগনা কার্টা জাতীয় জোট বিএনএ’র ঐতিহাসিক সাত দফার দেশব্যাপী প্রচার কার্যক্রম উদ্বোধন উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

নাজমুল হুদা বলেন, ‘দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে। তাই বিএনএ’র সাত দফা বাস্তাবায়ন এখন সহজ হবে। কারণ আগে আমাদের দুই নেত্রীকেই প্রয়োজন ছিল। কিন্তু এখন এক নেত্রীই যথেষ্ট আমাদের সাত দফা বাস্তাবায়ন করতে।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে হুদা বলেন, ‘আপনি যা চান শুধুমাত্র আপনিই পারবেন তা বাস্তবায়ন করতে। তাই এখন আর দ্বিতীয় নেত্রীর প্রয়োজন নেই। কারণ বাংলাদেশের সর্বশক্তির আধার আপনিই। তাই আপনিই পারবেন জাতীয় জোটের নির্বাচনের স্থায়ী রূপরেখা বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশে সত্যিকার অর্থে জবাবদিহিমূলক জনগণের সরকার ব্যবস্থা চালু রাখতে।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি আরো বলেন, ‘আমি দৃঢভাবে বিশ্বাস করতে চাই, আপনি গণতন্ত্রের মানসকন্যা। একই সঙ্গে আমি বিশ্বাস করতে চাই, বঙ্গবন্ধুর কন্যা হয়ে আপনি দেশে স্বৈরশাসন চান না, গণতন্ত্রকে সুসংহত করতে একটি সুষ্ঠু জাতীয় নির্বাচন চান, দেশে আইনের শাসন নিশ্চিত করতে চান, বিচারব্যবস্থা স্বাধীন ও নিরপেক্ষ রাখতে চান এবং নির্বাচন কমিশন, সরকারি কর্ম কমিশন, দুর্নীতি দমন কমিশনসহ জনপ্রশাসনকে নিরপেক্ষ দেখতে চান। কারণ আপনি চান না, আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি দলীয়করণের অভিশাপে জর্জরিত হউক।’

সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ‘নির্বানের রায়ের মাধ্যমেই জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাতে হবে। এই দাবি আজ শুধুমাত্র সময়ের দাবিই নয়, এটি একটি সার্বজনীন দাবি। দেশে একটি অবাধ নির্বাচন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এই দাবির সমর্থনে যুগ যুগ ধরে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।’

এসময় তিনি ‘গণতন্ত্রের ম্যাগনা কার্টা জাতীয় জোট বিএনএ’র ঐতিহাসিক সাত দফার দেশব্যাপী প্রচার কার্যক্রম’ ঘোষণা করেন।

কার্যক্রগুলো হলো: আগামী ১৫ নভেম্বর খুলনায় সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা, ২ ডিসেম্বর রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা, ১৯ ডিসেম্বর বরিশালে সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা, ৭ জানুয়ারি (২০১৬) সিলেটে সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা, ১৫ জানুয়ারি ঢাকায় প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন, ২১ জানুয়ারি চট্টগ্রামে সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা, ২৯ জানুয়ারি ময়মনসিংহে সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা, ১৫ ফেব্রুয়ারি রংপুরে সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা এবং ১ মার্চ ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন ও মত বিনিময় সভা এবং পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা।

এর আগে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি (২০১৫) গণতন্ত্রের ম্যাগনা কার্টা জাতীয় জোট বিএনএ’র ঐতিহাসিক সাত দফা ঘোষণা করেছিলেন নাজমুল হুদা। শনিবার আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ওই সাত দফা দাবি আবারও জনসম্মুখে তুলে ধরেন তিনি।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে এনপিপির চেয়ারম্যান শেখ শওকত হোসেন নিলু, বিএনএ’র মহাসচিব সেকেন্দার আলী, মুখপাত্র শেখ শহীদুজ্জামান, জাগো বাঙ্গীর চেয়ারম্যান মেজর (অব.) ডা. হাবিবুর রহমানসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন ডেস্ক; www.24khobor.com

www.brandbazaarbd.com



Related posts

মন্তব্য করুন