সর্বশেষ সংবাদ

জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭.০৫%, লাখ ছাড়া‌লো মাথা‌পিছু আয়

o general acbrand Bazaaqr

বাংলাদেশে মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপির প্রবৃদ্ধি প্রথমবারের মতো ৭ শতাংশ ছাড়িয়েছে। আর মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১ হাজার ৪৬৬ ডলার, যা বাংলা‌দেশি মুদ্রায় প্রায় ১ লাখ ১৪ হাজার ৫০৭ টাকা। এটা চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত প্রথম নয় মাসের হিসাব যা জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় জানানো হয়।

জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭.০৫%, লাখ ছাড়া‌লো মাথা‌পিছু আয়

চলতি অর্থবছরে সরকার প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ধরেছে সাত শতাংশ। আগের বছর যা ছিল ৭.৩ শতাংশ। এর আগের বছরও ৭ শতাংশের বেশি লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও তা অর্জন করা যায়নি। যদিও অর্থবছর শেষে মূল হিসাবটা জানা যাবে, তারপরও নয় মাসের হিসাবটি লক্ষ্যমাত্রা পূরণের পথে বাংলাদেশের এগিয়ে চলার লক্ষণ বলেই মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা।

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক চলতি বছর ৬.৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের পূর্বাভাস দিয়েছে। আগের বছরের চেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছে আইএমএফসহ আন্তর্জাতিক দাতাসংস্থাগুলোও।

তবে এসব দাতা সংস্থার পূর্বাভাসের চেয়ে বরাবরই বেশি হারে প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে বাংলাদেশে। ২০১৪-১৫ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি হয়েছিল ৬.৫৫ শতাংশ। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ছিল ৬.১২ শতাংশ। তখন দাতা সংস্থাগুলো আরও কম হারে প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছিল।

অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বরাবর বিশ্বের কাছে এক বিষ্ময়। আইএমএফের ওয়ার্ল্ড ইকোনকিম আউটলুকের তথ্য ব্যবহার করে সিএনএন মানির এক প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৯ সাল নাগাদ সবচেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জনকারী দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকবে বাংলাদেশ। আর ২০১৭ সাল থেকেই বাংলাদেশ ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে থাকবে। তবে এই পূর্বাভাসের এক বছর আগেই ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের পথে দেশ।

সিএনএন মানির করা বৈশ্বিক জিডিপির (মোট দেশজ উৎপাদন) পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বছর বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ হবে। আর সে অনুযায়ী ২০১৯ সালে ৯ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি নিয়ে বিশ্বের শীর্ষস্থানে উঠবে বাংলাদেশ।

তুলশীখালিতে নির্বাচনী সহিংসতায় এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম



Related posts

মন্তব্য করুন